• A
  • A
  • A
নতুন দায়িত্ব নিতে অস্বীকার, পদত্যাগ অলোক ভার্মার

দিল্লি, ১১ জানুয়ারি : ফায়ার সার্ভিস, সিভিল ডিফেন্স ও হোম গার্ডের DG পদে নিয়োগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পদত্যাগ করলেন অপসারিত CBI ডিরেক্টর অলোক ভার্মা। গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন হাই পাওয়ার কমিটি অলোক ভার্মাকে CBI-র ডিরেক্টর পদ থেকে অপসারিত করে নতুন পদে বদলি করে। তারপর আজ সেই দায়িত্ব গ্রহণ করতে অস্বীকার করেন অলোক ভার্মা।

অলোক ভার্মা


ডিপার্টমেন্ট অফ পার্সনেল অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের সেক্রেটারিকে লেখা চিঠিতে অপসারিত CBI ডিরেক্টর বলেন, "CVC যে তথ্য রেকর্ড করেছিল তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নিম্ন স্বাক্ষরকারী ব্যক্তি (অলোক ভার্মা)-কে ব্যাখ্যার কোনও সুযোগ দেয়নি সিলেকশন কমিটি। সঠিক ন্যায়বিচার বিঘ্নিত হয়েছে। CBI-র ডিরেক্টর পদ থেকে নিম্ন স্বাক্ষরকারী ব্যক্তিকে সরানোর বিষয়টি নিশ্চিত করতে পুরো প্রক্রিয়াটিকে উলটে দেওয়া হয়েছে। সিলেকশন কমিটি বিবেচনা করেনি যে, CVC-র রিপোর্টটি তৈরি করা হয়েছে এমন একজন ব্যক্তির অভিযোগের উপর ভিত্তি করে যাঁকে নিয়ে তদন্ত করছে খোদ CBI। এটা উল্লেখ করা যেতে পারে অভিযোগকারীর স্বাক্ষরিত উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বিবৃতিটিকে ফরোর্য়াড করে দিয়েছে CVC। অভিযোগকারী কখনও অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি একে পটনায়কের সামনে হাজির হয়নি। পাশাপাশি, বিচারপতি পটনায়েক সিদ্ধান্তে এসেছেন যে রিপোর্টের তথ্য বা উপসংহার তাঁর নয়।"


তিনি আরও বলেন, "গতকাল যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা শুধুমাত্র আমার কাজের প্রতিফলন নয়, CVC-র মাধ্যমে কোনও সরকার প্রতিষ্ঠান হিসেবে কীভাবে CBI-কে বিবেচনা করবে এটা তার সাক্ষ্য হয়ে উঠবে।" পাশাপাশি, অপসারিত CBI ডিরেক্টর বলেন, "২০১৭ সালের ৩১ জুলাই নিম্ন স্বাক্ষরকারী ব্যক্তির কাজের সময়সীমা উত্তীর্ণ হয়েছিল। ২০১৯ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত তিনি শুধুমাত্র CBI-র ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। নিম্ন স্বাক্ষরকারী ব্যক্তি এখন আর CBI-র ডিরেক্টর পদে নেই। সেই ব্যক্তির ইতিমধ্যে ফায়ার সার্ভিস, সিভিল ডিফেন্স ও হোম গার্ডের DG পদের অবসর গ্রহণের দিন পেরিয়ে গেছে। আজ থেকে নিম্ন স্বাক্ষরকারী ব্যক্তিকে অবসরপ্রাপ্ত হিসেবে বিবেচনা করা যেতে পারে।"

এর আগে, CBI-র অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে ২৩ অক্টোবর অলোক ভার্মাকে ছুটিতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। একই সঙ্গে অলোক বর্মার সঙ্গে স্পেশাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানাকেও ছুটিতে পাঠানো হয়। এই নির্দেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেন অলোক ভার্মা। তাঁর আইনজীবী ফলি নারিম্যান আদালতে আবেদনে বলেন, CBI প্রধানের মেয়াদ ২ বছরের জন্য নির্ধারিত। তাই শুধুমাত্র উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটির দ্বারা তাঁকে অপসারণ করা যেতে পারে। মামলাটি ওঠে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-র এজলাসে।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি অলোক ভার্মাকে ছুটিতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত খারিজ করে দেন। অলোক ভার্মাকে CBI-র ডিরেক্টর পদে পুনর্বহাল করার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, "অলোক ভার্মা এখন থেকে তাঁর অফিসে যেতে পারেন কিন্তু বড় কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না।" রায়ে প্রধান বিচারপতি অলোক ভার্মার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার হাই পাওয়ার কমিটির হাতেই ন্যস্ত করেন। ওই কমিটিতে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলনেতা ও সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি। কমিটিকে এক সপ্তাহের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলেও নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি।
এই সংক্রান্ত আরও খবর :অলোক ভার্মাকে ছুটিতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত খারিজ সুপ্রিম কোর্টের
শীর্ষ আদালতের নির্দেশের পর গতকাল হাই পাওয়ার কমিটির প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যদিও সেই বৈঠকে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। গতকাল সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাড়িতে ফের বৈঠকে বসে কমিটি। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-র প্রতিনিধি হিসেবে বৈঠকে ছিলেন বিচারপতি এ কে সিকরি। সেই কমিটিই অলোক ভার্মার অপসারণের সিদ্ধান্ত নেয়।

সরকারি তরফে জানানো হয়, দুর্নীতি ও কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে অলোক ভার্মাকে অপসারণ করা হয়েছে। কমিটির সামনে ভার্মার বিরুদ্ধে CVC-র রিপোর্ট পেশ করা হয়েছিল। CVC মোট ৮টি অভিযোগ এনেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। সবদিক বিচার করে কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য ভার্মার অপসারণের সিদ্ধান্ত নেন। একমাত্র বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে অপসারণের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন।
এই সংক্রান্ত আরও খবর :CBI-র ডিরেক্টর পদ থেকে অপসারিত অলোক ভার্মা

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES