• A
  • A
  • A
মমতা ফোন করে সরকারি কাজের নির্দেশ দিয়েছেন, ভিডিয়ো দিয়েছি : মুকুল

কলকাতা, ১৬ মার্চ : "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচনবিধি লঙ্ঘন করেছেন। তিনি ফোন করে সরকারি কাজের নির্দেশ দিয়েছেন। সেই ভিডিয়ো আমরা জমা দিয়েছি।" উপ মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনের সঙ্গে সাক্ষাতের পর একথা বলেন BJP নেতা মুকুল রায়।

Loading the player...
মুকুল রায়


তিনি আরও বলেন, "আমরা আবার দাবি করছি বাংলার প্রতিটি বুথকে অতি স্পর্শকাতর ঘোষণা করা হোক। বাংলাকেই স্পর্শকাতর ঘোষণা করা হোক। যাতে মানুষ অবাধে ভোট দিতে পারেন।" পাশাপাশি, তিনি দাবি করেন, BJP-র তরফে কোনও দাবির উত্থাপন করা হচ্ছে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একসময় ভোটে যে দাবি করতেন, সেই দাবিই করছে BJP। তাঁর কথায়, "বাংলার সব বুথকে স্পর্শকাতর ঘোষণা করতে হবে। রাজ্য পুলিশকে ভোটে ব্যবহার করা যাবে না। তাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বাক্ষর করেছিলেন। আমরা সেই কাগজ জমা দিলাম। ২০০৯ ও ২০১১ সালে যে দাবি করেছিলেন সেই দাবিই আমরা করেছি। নতুন কিছু করিনি।"


মুকুলের বক্তব্য, তাঁদের সব দাবি গুরুত্ব দিয়ে শুনেছে নির্বাচন কমিশন। তাহলে এখন কী চাইছেন? সে প্রসঙ্গে BJP নেতা বলেন, "আমরা কোনও বিশেষ সুবিধা চাই না। আমরা চাই অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক।" পাশাপাশি, মুকুলের দাবি, নির্বাচন কমিশনের উপর বাংলার মানুষের আস্থা রয়েছে। তাঁর কথায়, "ভারতের মানুষ যখন মঠ, মন্দির, মসজিদ, গির্জার উপর আস্থা হারাচ্ছেন তখন তাঁরা এখনও নির্বাচন কমিশনকে ভরসা করেন। তাঁরা বিশ্বাস করেন, নির্বাচন কমিশন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে ভোট করতে পারবে।"

ভারতীয় রাজনীতিতে তৃণমূল কংগ্রেসকে পাড়ার ক্লাবের থেকেও ছোটো বলে কটাক্ষ করেন মুকুল। বলেন, "তৃণমূল পাড়ার ক্লাবের থেকেও ছোটো। BJP পৃথিবীর বৃহত্তম রাজনৈতিক দল। তাদের একটা নিয়ম, নীতি, অনুশাসন রয়েছে। সবার সঙ্গে কথা বলে প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করা হয়।"

সর্বদলীয় বৈঠক থেকে বেরিয়ে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, "রাজ্যে উন্নয়ন এবং শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতি থাকা সত্ত্বেও বিরোধীরা নিজেদের দুর্বলতা ঢাকতে নানা ছলচাতুরির আশ্রয় নিচ্ছে।" সে প্রসঙ্গে মুকুল বলেন, "ওরা ভয়ে পেয়েছে। মানুষ ভোট দিলে পরাজিত হবে। সে বিষয়ে নিশ্চিত।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES