• A
  • A
  • A
লঙ্কাপাড়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৭

আলিপুরদুয়ার, ৫ জানুয়ারি : আলিপুরদুয়ারের লঙ্কাপাড়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় জড়িত সাতজনকে অসম থেকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। ২০ ডিসেম্বর ভারত-ভুটান সীমান্ত লঙ্কাপাড়ার পাগলি এলাকায় দুই যুবকের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। নাম নিরঞ্জন ছেত্রী (২৭) ও জেঠা লামা (২৬)। এরপর ১৪ দিনের অপারেশন "ব্ল্যাক থান্ডার" শেষে পুলিশ দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করে।


আলিপুরদুয়ারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গণেশ বিশ্বাস জানান, এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঁচ অভিযুক্তর বিরুদ্ধে বীরপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছিল দুই মৃতের পরিবার। অভিযুক্তদের ধরতে ৩৫ সদস্যের একটি বিশেষ টাস্কফোর্স গঠন করে আলিপুরদুয়ার জেলা পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় রিতরাজ তামাং ওরফে বোকে ও দীপরাজ ছেত্রী ওরফে দীপুসহ পাঁচজনকে। ধৃতদের মধ্যে পাঁচ জনের নাম FIR-এ ছিল। এদের পালাতে সহায়তা করার অভিযোগে অসমের ওই ডেরা থেকে গাড়ি চালক বুধরাম প্রধান ও ধীরাজ সানোয়ারকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গতকাল অভিযুক্তদের আলিপুরদুয়ার জেলা আদালতে তোলা হয়। তাদের ১০ দিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।
গতকাল আলিপুরদুয়ারে এক সাংবাদিক বৈঠক করে আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার সুনীল কুমার যাদব বলেন, "কুড়ি বছরেরও বেশি সময় ধরে ভুটান লাগোয়া লঙ্কাপাড়া এলাকায় গুলি বন্দুক নিয়ে সমান্তরাল প্রশাসন চালাত রিতরাজ তামাং ও দীপরাজ ছেত্রী। তাদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা রয়েছে। লঙ্কাপাড়ায় জোড়া খুনের পর ওই এলাকায় একটি সশস্ত্র পুলিশ ফাঁড়ি তৈরি করা হয়েছে। দুই যুবককে খুনের ঘটনায় ৬ ও ৯ মিমি পিস্তল ব্যবহার করেছিল দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থান থেকে উদ্ধার হয়েছিল ১১ রাউন্ড কার্তুজের খোল।" আলিপুরদুয়ারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গণেশ বিশ্বাস বলেন, "এরা দাগি আসামি। কোনওভাবেই এই ধরনের ঘটনা বরদাস্ত করা হবে না।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES