• A
  • A
  • A
গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে পাশের হার কম, রেজ়াল্ট রিভিউয়ের নির্দেশ

মালদা, ৭ জানুয়ারি : স্নাতকস্তরের ফল নিয়ে ছাত্র বিক্ষোভের আশঙ্কায় আজ বন্ধ রাখা হল গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেন গেট। গেট বন্ধ থাকায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা না করেই ফিরে গেল পড়ুয়ারা।

Loading the player...

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজেদের অধীনস্থ কলেজগুলির পার্ট ওয়ান ও টু-এর ফলপ্রকাশ করেছে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়। গতবছরের তুলনায় এবার পাশের হার অনেকটাই কম। পার্ট ওয়ানে গতবার পাশের হার ছিল ৬৭.৭৮ শতাংশ। এবার তা কমে হয়েছে ৫১.৮৯ শতাংশ। পার্ট টু-তে গতবার পাশের হার ছিল ৮৪.৯৮ শতাংশ। কিন্তু এবার তা কমে হয়েছে ৮০.৬৫ শতাংশ।
পড়ুয়াদের অভিযোগ, অনার্স পেপারগুলির ফল ঠিক থাকলেও পাসের বিষয়গুলিতে প্রকাশিত ফলে প্রচুর ভুল রয়েছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই গড় নম্বর দেওয়া হয়েছে। অনেক পরীক্ষার্থীই দু-চার নম্বরের জন্য অকৃতকার্য হয়েছে। এনিয়ে শুক্রবার তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কন্ট্রোলার অফ এগজ়ামিনেশন শ্যামাপদ মণ্ডলের সঙ্গে দেখা করতে গেছিল। কিন্তু, তিনি ছুটিতে থাকায় তারা ভারপ্রাপ্ত কন্ট্রোলার রাজীব পুততুণ্ডর সঙ্গে দেখা করে বিষয়টি নিয়ে নিজেদের ক্ষোভ জানায়।


কয়েকজন ছাত্রছাত্রী রাজীব পুততুণ্ডর সঙ্গে দেখা করতে আজ ফের বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছিল। পড়ুয়াদের বিক্ষোভের আশঙ্কায় গেটে ছিল সাদা পোশাকের পুলিশ। পড়ুয়ারা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটের বাইরে জড়ো হতে শুরু করলে বন্ধ করে দেওয়া হয় গেট। ভিতর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তাকর্মী ও তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কিছু সদস্য জানান, আজ উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও কন্ট্রোলার কেউই বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেননি। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে প্রতিটি কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি সমস্যা মিটে যাবে।

আজ দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে নিজেদের বক্তব্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানাতে এসেছিল গঙ্গারামপুর কলেজের ছাত্রী বর্ণা বসাক। সে বলে, "আমরা ২২ জন ওই কলেজে অংকে অনার্স নিয়ে পড়ি। তারমধ্যে ২০ জন পাসে রসায়ন বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে। সবাইকে গড় নম্বর দেওয়া হয়েছে।" একই বক্তব্য ওই কলেজের ছাত্র তুহিন মাহাতোর। সে বলে, "অনার্স বিষয়ে প্রত্যেককে গড় নম্বর দেওয়া হয়েছে। পাস কোর্সের বিষয়গুলিতে সবাইকে ফেল করানো হয়েছে।"


বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত কন্ট্রোলার জানান, বৃহস্পতিবার পার্ট ওয়ান ও টু-এর প্রভিশনাল রেজাল্ট বের হয়েছে। শুক্রবার বিভিন্ন কলেজ থেকে বেশ কিছু ছাত্রছাত্রী নিজেদের অভিযোগ নিয়ে কথা বলতে আসে। বিষয়টি তিনি উপাচার্যকে জানিয়ে দেন। প্রকাশিত ফলে বেশ কয়েকটি ত্রুটি তাঁদের নজরেও এসেছে। উপাচার্য প্রকাশিত ফল রিভিউ করার জন্য নোটিশ জারি করেছেন। প্রতিটি কলেজে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এটা চূড়ান্ত রেজাল্ট নয়। রিভিউয়ের কাজ দ্রুত চলছে। তবে কবে ফল প্রকাশিত হবে তা নিয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারেননি রাজীববাবু।






CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES