• A
  • A
  • A
পুলিশের বিরুদ্ধে বেআইনি ভাবে টাকা তোলার অভিযোগ, পথ অবরোধ

বিষ্ণুপুর, ১৯ ডিসেম্বর : বেআইনি ভাবে টাকা তোলার অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। তার জেরে বিষ্ণুপুরের ভগত সিং মোড় সোনামুখী বাইপাসে পথ অবরোধ করল স্থানীয়রা। পুলিশের তৈরি চেকপোস্টে দাঁড়িয়েই বালি বোঝাই গাড়ি থেকে টাকা তোলার অভিযোগ উঠল খোদ পুলিশের বিরুদ্ধেই। বাঁকুড়ায় প্রশাসনিক বৈঠকে এসে মুখ্যমন্ত্রী ওভারলোডেড লরি নিয়ে সরব হন। তারপরই জেলার বিভিন্ন জায়গায় ঘটা করে তড়িঘড়ি CCTV বসিয়ে চেকপোস্ট বানায় পুলিশ। প্রথম কিছুদিন সরকারিভাবে লরি পিছু ফাইন করা হলেও, পরে টাকা নিয়ে লরি ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

Loading the player...
ভিডিয়োয় শুনুন পুলিশের বক্তব্য


আজ সন্ধে সাড়ে সাতটা নাগাদ পুলিশ বালির লরি পিছু ৫০০ টাকা করে আদায় করছিল বলে অভিযোগ। তখন তাদের হাতেনাতে ধরে স্থানীয় বাসিন্দারা। এরপরই রাজ্য সড়ক জুড়ে শুরু হয় পথ অবরোধ। কর্তব্যরত পুলিশের উপর চড়াও হয় সাধারণ মানুষ। তাঁদের দাবি, ওভারলোডেড বালির লরি থেকে ফাইন নিয়ে তার রসিদ দিতে হবে। এছাড়া চৌমাথা মোড়ে আলো নিভিয়ে টাকা তোলা বন্ধ করতে হবে পুলিশকে। যদিও কর্তব্যরত পুলিশের দাবি, টাকা তোলা হয়নি। তিনি আরও জানান যে, CCTV লাগানো হয়েছে আর ওভারলোডেড লরি আটকানো হয়েছে ফাইন করার জন্য। কিন্তু বাস্তবে ছবিটা আলাদা। পরে ওই পুলিশকর্মীই ক্যামেরার সামনে স্বীকার করেন, CCTV এখনও চালুই হয় নি।
স্থানীয় মানুষের বিক্ষোভ রুখতে ঘটনাস্থানে যান বিষ্ণুপুর থানার IC আস্তিক মুখার্জি। বালির লরির চালকরা বলেন, "আগে ২০০ টাকা দিলে লরি ছেড়ে দিত, কিন্তু এখন ৫০০ টাকা দিচ্ছি পুলিশকে।" এবিষয়ে আস্তিকবাবু অবশ্য কিছু বলতে নারাজ। তিনি বলেন, "আমার বলার অধিকার নেই।"


অবরোধকারীদের অভিযোগ, "পুলিশ বাসযাত্রীদের প্রতীক্ষালয়কে চেক পোস্ট বানিয়েছে। সারারাত বালির লরি থেকে টাকা তুলছে তারা। সন্ধে নামলেই বাইপাস মোড়ের সব আলো নিভিয়ে দেয়। এতে দুর্ঘটনার আশঙ্কা অনেক বেড়ে গেছে।" বিষ্ণুপুর SDPO ফোন না ধরায় তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES