• A
  • A
  • A
ছুরি নিয়ে প্রাক্তন মন্ত্রীর বাড়িতে যুবক, গ্রেপ্তার

বিষ্ণুপুর, ২ জানুয়ারি : রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও বিষ্ণুপুরের চেয়ারম্যান শ্যামাপদ মুখার্জিকে খুনের চক্রান্তের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হল পৌরসভারই এক অস্থায়ী কর্মীকে। নাম মিলন দাস বাউড়ি। বিষ্ণুপুরের কুঁদকুঁদা বাজারে তার বাড়ি।

Loading the player...
চেয়ারম্যান শ্যামাপদ মুখার্জির বক্তব্য


সোমবার রাতে নিজের বাড়িতে কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন শ্যামাপদবাবু। সেই সময় তাঁর সঙ্গে দেখা করতে আসে এক যুবক। জুতো খোলার সময় তাঁর কোমরে একটি ছোটো লাঠি দেখতে পান চেয়ারম্যানের দেহরক্ষী কৃষ্ণেন্দু জানা। এরপর ওই লাঠিটি নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে যান তিনি। সেটির ভিতরে একটি ছুরি রাখা ছিল। ততক্ষণে অভিযুক্ত যুবক পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে মিলনকে বাড়ি থেকে আটক করে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদের পরও যথাযথ উত্তর না পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শ্যামাপদবাবু বলেন, "আমার দেহরক্ষীর নজরে না এলে আমাকে খুন হতে হত। এটা একটা রাজনৈতিক চক্রান্ত। যারা আমাকে সহ্য করতে পারে না তারাই এই সব করাচ্ছে।" ঘটনায় BJP-র হাত রয়েছে বলে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের অনুমান।


জানা গেছে, ওই যুবক পৌরসভার কর্মী এবং "আমার বাড়ি" প্রকল্পে তাকে বাড়ি দিয়েছে পৌরসভাই। তা সত্ত্বেও কেন অস্ত্র নিয়ে চেয়ারম্যানের বাড়ি ঢুকেছিল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এদিকে সোমবারই স্থানীয় এক BJP নেতার বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তার প্রতিশোধ নিতেই চেয়ারম্যানকে খুনের পরিকল্পনা করা হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

এদিকে মিলনের গ্রেপ্তারের পর তার মা সুজাতা দাস বাউরি বলেছেন, "নাতির শরীর খারাপ বলে ওষুধ আনতে গিয়েছিল আমার ছেলে। তারপর রাতে পুলিশ বাড়িতে আসতেই আমরা হতবাক। যার খাই, যার দয়ায় বেঁচে আছি তাঁকে মারতে যাবে কেন ?" বছর দুয়েক আগে বিয়ে হয়েছে মিলন দাস বাউড়ির। মদের নেশায় সে এ কাজ করে ফেলেছে বলে তার পরিবারের বক্তব্য।


CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES