• A
  • A
  • A
একজনের বাড়ি 'ভুল' করে পেয়েছে অন্যজন, স্বীকার অনুব্রতর

নানুর, ৮ জানুয়ারি : লোকসভা নির্বাচনের আগে নানুরে দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মিটিয়ে নিতে দলীয় কর্মীদের বার্তা দিলেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। পাশাপাশি, নানুর ব্লকে দলের জনসভায় লোকসংখ্যা কম নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। দলেরই এক পঞ্চায়েত সদস্য আবাসন যোজনার বাড়ি আত্মসাৎ করেছেন। গতকাল অনুব্রতবাবুর সামনেই এই অভিযোগ করেন এক তৃণমূল কর্মী। এরপরে অনুব্রত মণ্ডলের বক্তব্য, "একজনের বাড়ি অন্যজনকে ভুল করে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেটা BDO-কে দরখাস্ত করলে সংশোধন করে দেওয়া হবে। যদি কোনও মানুষ ঠকবাজি করে সঙ্গে সঙ্গে থানায় যাবেন, অভিযোগ জানাবেন।"

Loading the player...
ভিডিয়োয় শুনুন অনুব্রত মণ্ডলের বক্তব্য


গতকাল নানুর ব্লকে একটি জনসভা করেন অনুব্রত মণ্ডল। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ, জেলা সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরি, সহসভাপতি অভিজিৎ সিংহ প্রমুখ। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গত বিধানসভা নির্বাচনে নানুরে ২৫ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হয়েছেন CPI(M) প্রার্থী শ্যামলী প্রধান। তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে নানুর থেকে তৃণমূল কেমন ফল করবে এই নিয়ে সংশয় রয়েছে দলের অন্দরে। সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে অনুব্রতবাবু বলেন, কোনও জায়গায় ৮০ হাজার, কোনও জায়গায় ১ লাখ, কোনও জায়গায় দেড় লাখ লোক হচ্ছে। সেই অনুযায়ী এখানে লোক কম। নানুরের দেখভালে যে আছে তাকে বলব শীঘ্রই এই ব্যাপারটা দেখা উচিত। কেন লোক কমল? কী জন্য লোক কমল? মোট বুথ ১৯৭, আর ১৪৬টাতে আমরা হেরে আছি। খুব লজ্জা লাগে। বলতে খারাপ লাগে। জানি না এখানকার ব্লক প্রেসিডেন্টরা কতটা রিকভারি করেছে। কী হয়েছে? কাজ কম হয়েছে? মানুষকে উন্নয়ন দিইনি? কোনও ত্রুটি আছে? কেউ দাঁড়িয়ে বলতে পারবেন যে নানুর ব্লকে ত্রুটি আছে? এখানে কি খাদ্যসাথী আসেনি? এখানে কি কন্যাশ্রী আসেনি? এখানে কি রূপশ্রী হয়নি? এখানে যুবশ্রী হয়নি? কেউ ভয় দেখায়? কেউ তো ভয় দেখায় না। কেউ টাকা চায়? প্রধানরা কাজ করেন না? কেউ কি বাড়ির টাকা চায়? দেবেন না। অভিযোগ জানাবেন পুলিশে। যদি কেউ বাড়ির টাকা চায়, যদি কেউ খারাপ ব্যবহার করে তাঁকে ছাড়বেন না।"
অনুব্রতবাবু মঞ্চ থেকেই জিজ্ঞাসা করেন, "কার বাড়ি নেই, কে নিয়েছে? সভাস্থল থেকে এক কর্মী বলেন, "লোকের বাড়ি নিয়ে নিয়েছে পঞ্চায়েতের সদস্য।" এরপরে মঞ্চেই নানুরের ব্লক সভাপতি সুব্রত ভট্টাচার্যকে ডেকে পুরো বিষয়টি জানতে চান। সব শুনে পরে অনুব্রতবাবু জানান, এই বিষয়ে একটা ভুল হয়েছে। BDO-কে দরখাস্ত করলেই ঠিক করে দেওয়া হবে। বক্তব্য শেষ করার আগে নানুরে দলের গোষ্ঠীকোন্দল মিটিয়ে নেওয়ার প্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, "আর কয়েক দিন পর লোকসভা নির্বাচন। আমি চাই ভুল বোঝাবুঝি ভুলে গিয়ে ১৯৭টা বুথে যেন লিড হয়। যদি কোনও অসুবিধা থাকে আলোচনা করুন। রাগ করবেন না। থালার উপর রাগ করে মাটিতে ভাত খাবেন না। যদি কারও সঙ্গে কোনও বোঝাপড়া থাকে পাশে সরিয়ে রাখুন।"




CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES