• A
  • A
  • A
মোদিজি জাল সার্টিফিকেট নিয়ে ঘুরছেন: ইদ্রিশ আলি

বারাসত, ৬ জানুয়ারি : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও BJP রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ ইদ্রিশ আলি। গতকাল বিকেলে বারাসতের রথতলায় ব্রিগেড সমাবেশের প্রচার সভায় তিনি বলেন, "দিলীপ ঘোষের জাল সার্টিফিকেট। কত লেখাপড়া জানেন তা বলতে পারবেন না। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজিও জাল সার্টিফিকেট নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তিনি ম্যট্রিক পাশ না ক্লাস এইট পাশ, BA পাশ না MA পাশ তা বলতে পারছেন না। এই রকম একজন প্রধানমন্ত্রী আজ দেশ চালাচ্ছেন।"

Loading the player...
ইদ্রিশ আলি


ইদ্রিশ আলি আরও বলেন, "ওরা (BJP) কোনও উন্নয়নের কথা বলতে পারছে না অথচ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের সঙ্গে তুলনা করছে। মমতা দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী। দেশের ধর্ম নিরপেক্ষ মানুষ ঠিক করে নিয়েছে BJP দেশ চালাতে ব্যর্থ। BJP-কে একমাত্র সরাতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, আর কেউ নন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক।" শিক্ষাগত যোগ্যতার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর পরিবার নিয়েও খোঁচা দেন তৃণমূল সাংসদ। বলেন, "প্রধানমন্ত্রী বেটি বাঁচাও-বেটি পড়াও, মহিলাদের কথা বলছেন। কর্পোরেটদের ফিট করে উনি ক্ষমতায় এসেছিলেন। আমরা মাঝে মাঝে ওঁকে ঠাট্টা করে বলি, মোদিজি ক্যাঁহা হ্যায় ভাবিজি। ভাবি মানে মোদিজি-র স্ত্রী। ওঁর সঙ্গে স্ত্রী-র সম্পর্ক নেই। মাকে দেখেন না। যে ১০ লাখ টাকার কোট পরেন, তাও আবার সোনার সুতো দিয়ে। তিনি গরিবের বন্ধু হন কি করে? কন্যাশ্রী প্রকল্পে যেখানে ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ, সেখানে বেটি বাঁচাও-বেটি পড়াও প্রকল্পে মাত্র ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ। ফাজলামির একটা সীমা আছে।"
রাজ্য BJP সভাপতি দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, "BJP-র ঘুম চলে গেছে। আমাদের এরাজ্যের BJP সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বড় বড় কথা বলেন খালি। অনুব্রত মণ্ডলের কথাতেই বলতে হয়, চলে যাওয়ার আগে এদের পাঁচন দেওয়া প্রয়োজন। পাঁচন না দিলে ওরা তাড়াতাড়ি যাবে না। আমাদের রক্ত লাল। তবে BJP-র রক্তে কী আছে সেটা বলছি না।"


প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় ইদ্রিশ আলির কড়া সমালোচনা করেন BJP-র রাজ্য কমিটির সদস্য শংকর চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, "আগে ইদ্রিশ আলি নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা দেখুন। তারপর প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলবেন। ওদের কাছ থেকে এর থেকে বেশি কিছু আশা করা যায় না। যাকে খুশি করতে উনি এসব কথা বলছেন সেই মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কোনওদিন প্রধানমন্ত্রী হওয়া হবে না। শুধু স্বপ্ন নিয়েই বেঁচে থাকুন ওরা।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES