• A
  • A
  • A
ধর্মঘটের দিন একটু চোখ পাকাবেন, কর্মীদের নির্দেশ জ্যোতিপ্রিয়র

বারাসত, ৬ জানুয়ারি : ৮ ও ৯ জানুয়ারি বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনের ডাকে ধর্মঘট। সেই ধর্মঘটের দিন দলীয় কর্মীদের রাস্তার মোড়ে মোড়ে বসে থাকার পরামর্শ দিলেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

Loading the player...
ফাইল ফোটো


১৯ জানুয়ারি তৃণমূলের ডাকে ব্রিগেড সমাবেশ রয়েছে। গতকাল বারাসতের রথতলায় তার প্রস্তুতি সভার আয়োজন করেছিল INTTUC। সেই সভা থেকে তৃণমূল কর্মীদের উদ্দেশে জ্যোতিপ্রিয় বলেন, "৮ ও ৯ তারিখ ধর্মঘটের দিন আপনারা রাস্তায় নামবেন। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বসে থাকবেন। তবে, লাঠিসোঁটা নিয়ে নয়। একটু চোখ পাকাবেন, তাতেই ধর্মঘটকারীরা পালিয়ে যাবে। আর লাঠিসোঁটা নিয়ে থাকলে তো দেখবেন দৌড়ে পালাবে।"


৮ ও ৯ তারিখের ধর্মঘট রুখতে দলের ট্রেড ইউনিয়নকে বাড়তি দায়িত্ব নেওয়ার পরামর্শ দেন জ্যোতিপ্রিয়। তিনি বলেন, "৮ ও ৯ তারিখ কোনও ধর্মঘট হবে না। স্কুল ও কলেজ সব খোলা থাকবে। চলবে গাড়িও।" বামেদের কটাক্ষ করে তিনি বলেন, "যে দলটি ধর্মঘট ডেকেছে, তাদের মাটি তলানিতে এসে ঠেকেছে। মাটির তলা মানে পাতালেও তাদের জায়গা নেই। কোথায় যে চলে যাবে, তা তারা নিজেরাই জানে না। গুন্ডামি করে সরকারি অফিস বন্ধের চেষ্টা করা হলে তা বরদাস্ত করা হবে না।" ১৯ জানুয়ারি দলের ডাকা বিগ্রেড সমাবেশ নিয়ে বলতে গিয়ে জ্যোতিপ্রিয় দাবি করেন, ১৯ জানুয়ারি বিগ্রেড সমাবেশ হবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিগ্রেড। এই বিগ্রেড আর কেউ করতে পারবে না। ওই দিনের বিগ্রেড সমাবেশে লাখ লাখ মানুষের জমায়েত হবে। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা থেকেই অন্তত সাত থেকে আট লাখ মানুষের জমায়েত যাবে। এর জন্য বিভিন্ন যানবাহন ইতিমধ্যে বুকিংও করা হয়ে গেছে।

তৃণমূল জেলা সভাপতি আরও বলেন, "আগামীদিনের ভারতবর্ষে একমাত্র আশা ও ভরসা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেদিন এই রাজ্য থেকে ৪২টি আসন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী দিল্লি থেকে ফিরে আসবেন সেই দিন বিমানবন্দরে ১০ লাখ মানুষ স্বাগত জানাবে তাঁকে। দিল্লির মসনদে কে বসবেন, তা ঠিক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। কে বলতে পারে, আগামী প্রধানমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় যে হবে না। উনি তো হতেই পারেন।" অন্যদিকে, BJP-কে আক্রমণ করে তিনি বলেন, "BJP-কে নিয়ে আমরা এতটুকু বিচলিত নই। তিনটে থেকে চারটে অসভ্য লোক ওই দলটা করে। যারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আমাদের উঠতে বসতে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে। ওরা গালিগালাজ করলেও আপনারা কোনও উলটো পালটা ভাষা প্রয়োগ করবেন না। ওদের সাথে কোনও গন্ডগোলেও জড়াবেন না। শুধু যেখানে সভা করে মিথ্যাচার করবে সেখানে পালটা সভা করে তার জবাব দেবেন।" এছাড়াও, বিমান বসুকে কটাক্ষ করেন রাজ্য INTTUC-র সভানেত্রী ও সাংসদ দোলা সেন। তিনি বলেন, "এখন শীতকাল। বিমান বাবুর বয়স হয়েছে। উনি সুস্থ ও ভালো থাকুন।" তাঁর কথায়, তৃণমূল জমানায় বাংলা থেকে বনধ উঠে গেছে। সেটাই আবার ৮ ও ৯ তারিখে প্রমাণ হবে।


CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES