• A
  • A
  • A
সুপারের সিদ্ধান্তে প্রাণ বাঁচল দুর্ঘটনায় আহত মহিলার

বারাসত, ৯ জানুয়ারি : সফল অস্ত্রোপচার করে ফের নজির গড়ল বারাসত জেলা হাসপাতাল। শিউলি অধিকারী(৩৮) নামে এক মহিলা পথদুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হয়েছিলেন। তাঁর বাঁচার সম্ভাবনা প্রায় ছিল না। জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করার প্রয়োজন ছিল। পুলিশ মহিলাকে হাসপাতালে ভরতি করে। তখন তাঁর পরিবারের সম্পর্কে পুলিশ কিছু জানতে পারেনি। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকদের কাছ থেকে খবর পান সুপার সুব্রত মণ্ডল। তিনি মহিলাকে বাঁচাতে তাঁর পরিবারের জন্য অপেক্ষা না করেই অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন। অস্ত্রোপচারের পর এখন মহিলা সুস্থ আছেন। এজন্য শিউলিদেবীর মা হাসপাতালের সুপারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

শিউলি অধিকারী


পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিউলিদেবীর বাড়ি মধ্যমগ্রামের আবদালপুরে। আজ সকালে একটি লরি তাঁকে ধাক্কা মারে। লরির চাকা তাঁর ডান হাতের উপর দিয়ে চলে যায়। গুরুতর জখম অবস্থায় মধ্যমগ্রাম থানার পুলিশ তাঁকে বারাসত হাসপাতালে ভরতি করে। দুর্ঘটনার খবর তখনও তাঁর পরিবারের সদস্যরা জানতেন না। কিন্তু শিউলিদেবীকে বাঁচাতে তাঁর পরিবারের অনুমতি ছাড়াই ডান হাতের কব্জি কেটে বাদ দেওয়া হয়।


হাসপাতালের সুপার সুব্রত মণ্ডল বলেন, "ওঁকে বাঁচাতে এছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না। ওঁর হাত থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। বুঝতে পেরেছিলাম অস্ত্রোপচার ছাড়া এই রক্তক্ষরণ বন্ধ করা সম্ভব নয়। তাই পরিবারের জন্য অপেক্ষা না করে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নিই। আজ দুপুরে ওঁর মা-কে সে কথা বুঝিয়ে বলি। উনি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।"


CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES