• A
  • A
  • A
"কেবিনে বসেছিলাম দুম করে মারল লরিটা, তারপর সব অন্ধকার"

চন্দ্রকোনা, ২৬ ডিসেম্বর : চন্দ্রকোনার বাস দুর্ঘটনা প্রাণ কেড়েছে ৮ জনের। গুরুতর আহতদের মধ্যে কেউ খুইয়েছেন পা, কারোর আবার বাদ গেছে হাত। অনেকে হাসপাতালের বেডে শুয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন। কোনওরকমে প্রাণে বেঁচে ফিরেছেন রত্না মল্লিক। দুর্ঘটনার সময় তিনিও ছিলেন বাসে। বসেছিলেন কেবিনে। চোখের সামনে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনার কথা জানালেন নিজেই।

Loading the player...
রত্না মল্লিকের বক্তব্য ও ঘটনাস্থানের ভিডিয়ো


রত্নাদেবীর কথায়, "বাসচালকের কোনও দোষ নেই। ভালোই চালাচ্ছিলেন। কীভাবে কী ঘটে গেল জানি না। আমি একজন ICDS কর্মী। প্রতিদিন বাসে যাই। আজ সকালেও কর্মক্ষেত্রে পৌঁছানোর জন্য মেদিনীপুর থেকে বাসে উঠেছিলাম। কেবিনে বসেছিলাম। বাঁদিকে। নামার কথা ক্ষীরপাইয়ে। খেজুরডাঙার কাছে ঘটে দুর্ঘটনাটা। উলটো দিক থেকে আসা একটা লরি দুম করে মারল বাসের ডানদিকে। তারপর আর কিছু মনে নেই। সব অন্ধকার। জ্ঞান ফিরলে দেখি হাসপাতালে।"
এই সংক্রান্ত খবর : চন্দ্রকোনায় যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষ, মৃত ৮
দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন কাশীনাথ ঘোষ। তাঁর এক আত্মীয় বলেন, "কাশীনাথ পেশায় পান ব্যবসায়ী। প্রতিদিনের মতো সে আজ যাচ্ছিল। কিন্তু, বাস দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হয়। এখন তার অবস্থা ভালো নয়। বাড়িতে স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। তাদের খবর দেওয়া হয়েছে। আমি দুর্ঘটনার খবর পেয়েই এসেছি।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES