• A
  • A
  • A
মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর পশ্চিম মেদিনীপুরে বালি খাদান থেকে আয় ৫০ লাখ

মেদিনীপুর, ৩০ ডিসেম্বর : পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বালি খাদান নিয়ে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছিলেন, অবৈধ বালি খাদান বন্ধ করতে হবে, জরিমানা করতে হবে ও বৈধ খাদানগুলো থেকে বকেয়া কর আদায় করতে হবে। তারপরই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। তার জেরে মাত্র ২৬ দিনে বালি খাদান থেকে জরিমানা ও কর মিলিয়ে প্রায় ৫০ লাখ টাকা আদায় করল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার বিভাগ।

Loading the player...
ছবি সৌজন্য : pixabay


গত ৩ ডিসেম্বর পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবৈধ বালি খাদান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। আধিকারিকদের দ্রুত অবৈধ খাদান বন্ধ করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছিলেন। প্রয়োজনে CCTV বসিয়ে নজরদারির নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই মতো কাজ শুরু করে ভূমি ও ভূমি সংস্কার বিভাগ। ব্লক ও জেলাস্তরে গঠন করা হয় টাস্ক ফোর্স। বাড়ানো হয় নজরদারি। বন্ধ করা হয় প্রায় ৭০টি অবৈধ বালি খাদান। পাশাপাশি সরকার স্বীকৃত ৭৪টি বালি খাদান মালিকদের সতর্ক করা হয়। সরকার স্বীকৃত বালি খাদান মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তারা নিজেদের এলাকার পাশাপাশি অন্য জায়গা থেকেও অবৈধভাবে বালি তোলে। এই বালি তোলা বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার বিভাগের আধিকারিকদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশিকায় কাজ হয়েছে। অবৈধভাবে বালি তোলা বন্ধের পাশাপাশি কর আদায়ের পরিমাণ বেড়েছে। জরিমানা তোলার কাজেরও গতি এসেছে।
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার বিভাগের আধিকারিক উত্তম অধিকারী জানান, মুখ্যমন্ত্রী কড়া বার্তা দেওয়ার পর ভূমি সংস্কার দপ্তরের কাজে গতি এসেছে। ব্লক ও জেলাস্তরে তৈরি হয়েছে বিশেষ মনিটরিং টিম। অবৈধ বালি খাদান রুখতে নিয়ম করে অভিযান চলছে। আগামীদিনে এই অভিযান চলতে থাকবে। ইতিমধ্যেই জেলায় প্রায় ৭০টিরও বেশি অবৈধ বালি খাদান বন্ধ হয়েছে। অভিযানের কারণে বেড়েছে জরিমানা আদায়ও।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES