• A
  • A
  • A
মানুষের টাকা চুরি করেছে তৃণমূল : রাহুল সিনহা

কেশিয়াড়ি, ৭ জানুয়ারি : "মানুষের টাকা চুরি করেছে। তাই তৃণমূল কংগ্রেসের বিনাশের দিন আসন্ন। তারা আগে নিজেদের উদ্ধার করুক, তারপর না হয় কেশিয়াড়ি ও গোয়ালতোড় উদ্ধার করবে।" গোয়ালতোড় ও কেশিয়াড়ি নিয়ে গতকাল সভা শেষে বললেন BJP নেতা রাহুল সিনহা।

Loading the player...
ফাইল ফোটো


পঞ্চায়েত ভোটে কেশিয়াড়িতে জেতে BJP। কেশিয়াড়িকে উদ্ধার করতে কার্যত মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। গতকাল গোয়ালতোড়ে একটি সমাবেশের ডাক দিয়েছিল BJP। উপস্থিত ছিলেন রাহুল সিনহা, জয় ব্যানার্জিসহ অন্য BJP নেতৃত্ব। সভা শেষে একান্ত সাক্ষাৎকারে ETV ভারতের সাংবাদিককে রাহুল সিনহা বলেন, "কেশিয়াড়ি ও গোয়ালতোড় শুভেন্দুবাবুকে আর উদ্ধার করতে হবে না, আগে তিনি নিজেদের উদ্ধার করুক।" পাশাপাশি তিনি জানান, তাঁদের গোয়ালতোড় পঞ্চায়েতে ভালো ফল হয়েছে, ভালো ফল হয়েছে কেশিয়াড়িতেও। তাই মানুষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।


কেশিয়াড়িতে BJP যে দাঁত ফুটিয়েছে তা টের পাচ্ছে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস। ৩ ডিসেম্বর এখানে সভা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সভা থেকে কেশিয়াড়ির দায়িত্ব তুলে দেন শুভেন্দু অধিকারীর হাতে। দায়িত্ব পাওয়ার পর পশ্চিম মেদিনীপুরের একটি কর্মী সম্মেলন থেকে কর্মীদের উদ্দেশে শুভেন্দু অধিকারী বার্তা দেন, কেশিয়াড়ি উদ্ধার করতে চাইলে আমার সঙ্গে আলো নিভিয়ে, মোবাইল সুইচ অফ করে দেখা করুন, আমি বলে দেব কী ভাবে অভিযান করতে হয়। আর কী ভাবে বেরিয়ে আসতে হয়। ঠিক তারপরই ওখানে পালটা সভা করেন দিলীপ ঘোষ।

কয়েকমাস পর লোকসভা নির্বাচন। পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়িতে পঞ্চায়েতে যেভাবে সাফল্য এসেছে ঠিক সেইভাবেই গোয়ালতোড়সহ জেলার বাকি এলাকাও BJP নিজের দখলে রাখতে চাইছে। তাই শুভেন্দু অধিকারীর সেই বক্তব্যকের পরিপ্রেক্ষিতে রাহুল সিনহা বলেন, "তৃণমূল কংগ্রেস মানুষের টাকা চুরি করেছে। রাজ্যের টাকা এমন কী রাষ্ট্রের টাকাও চুরি করেছে। তারা ক্ষমতায় আসার আগে যা বড় বড় কথা বলেছিল সেই সমস্ত কথার খেলাপ করেছে। সেই কারণে আমরা মনে করি তৃণমূল কংগ্রেসের বিনাশের দিন আসন্ন। এটা রোখার ব্যবস্থা তারা আগে করুক। মানুষকে উদ্ধার করার লোক ভারতীয় জনতা পার্টিতে আছে।"

লোকসভায় কটা সিট জিতবেন বলে মনে করছেন? এই প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, "লোকসভায় আমরা খুব ভালো ফলের আশা করছি। যে ফলাফল তৃণমূল কংগ্রেসের ভাঙনকে ছ'মাসের মধ্যে ত্বরান্বিত করবে এবং নতুন ভোটে BJP সরকার আসবে। এরকম ফলাফল আশা করছি। সিটের বিচার পরে করা হবে।"

BJP-তে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "রাজনৈতিক মতপার্থক্যকে যদি কেউ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে তাহলে আমি তা মানি না। একটা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে চলার পথে পাঁচরকম মত থাকবে। সেই পাঁচটা মতকে একসঙ্গে নিয়েই চলাই হচ্ছে সত্যিকারের গণতন্ত্র। আর তৃণমূলে কী চলছে? একটা মত কালীঘাট থেকে বেরোয়, সেই মত নিয়ে চলতে পারলে পার্টিতে থাকো, না হলে পার্টি থেকে বেরিয়ে যাও। এটা গণতন্ত্র নয়। আমরা বাংলায় গণতন্ত্র প্রতিস্থাপন করব তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। গণতন্ত্র মানেই ভিন্ন মতের সংমিশ্রণ।"


CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES