• A
  • A
  • A
পদ্ম ও ঘাসফুল মিলে বাংলার মানুষকে এপ্রিলফুল করেছে : সেলিম

বিষ্ণুপুর, ৬ জানুয়ারি : "সারদা, নারদে অভিযুক্তরা এখন জেলের বাইরে। কারণ, কেন্দ্রের শাসকদলের সাথে রাজ্যের শাসকদলের বোঝাপড়া হয়ে গেছে। আর রাজ্যে BJP নাটক করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কথা বলে। দিল্লিতে মোদি, রাজ্যে দিদি। ঘাসফুল আর পদ্মফুল। আসলে দুই ফুল মিলে বাংলার মানুষকে এপ্রিল ফুল বানিয়েছে।" দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরের জয়রামপুরে এক জনসভায় গতকাল একথা বলেন CPI(M) সাংসদ মহম্মদ সেলিম। ৮ ও ৯ জানুয়ারি ধর্মঘটের সমর্থনে গতকাল সভা করে বামেরা।

Loading the player...
মহম্মদ সেলিম


সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সেলিম বলেন, "কে কাকে আটকাবে। দিল্লিতে মোদির লুট আর এখানে দিদির লুট চলছে। ১০০ দিনের কাজ, আবাস যোজনার টাকাসহ সবক্ষেত্রে দুর্নীতি হচ্ছে। দিল্লির সরকারের কোনও পরিকল্পনা নেই। না আছে স্বাস্থ্যে, না আছে শিক্ষায়, না আছে গ্রামীণ উন্নয়নে। অফিসাররা বলেন, উপর থেকে নির্দেশ না এলে কিছু করা যাবে না। বলে না বন্ধন অটুট হে, এ জোট টুটনে ওয়ালা নেহি হে। দিল্লিতে BJP সেটিং করছে আর এখানে এসে বলছে দেখ তৃণমূল দলটা এত বদ, এদের এত মস্তানি। এদের লাল পতাকা জব্দ করতে পারবে না। তার জন্য ৫৬ ইঞ্চির ছাতি লাগবে। ঘাসফুল নাকি পদ্মফুলকে আটকাবে আর পদ্মফুল ঘাসফুলকে আটকাবে। এরা কেউ কাউকে আটকাবে না।"
সেলিমের অভিযোগ, "দেশে ও রাজ্যে লুট চলছে। আর লুট চললে ঝুট বলতে হবে। চুরি, রাহাজানিকে আড়াল করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সততার প্রতীক সাইনবোর্ড লাগাতে হয়। আর ওখানে বলছে, হাম তো ফকির হে ঝোলা লেকে চলে যায়েঙ্গে। আর দুজনেই বলেন, তাঁরা নাকি ১৮-১৯ ঘণ্টা কাজ করেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিশা আম্বানির মেয়ের বিয়েতে তিনদিন ধরে ব্যস্ত। দেশের পুঁজিপতিদের দালাল।" তিনি আরও বলেন, "রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় বিধানসভা নির্বাচনের ফলের অপেক্ষায় ছিলেন দিদি। যেই কংগ্রেস জিতল তখনই কংগ্রেসের সাথে মিশে গেলেন। পাঁচ রাজ্যে BJP-কে পরাস্ত করতে তৃণমূলের কোনও ভূমিকা ছিল না।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES